কলকাতায় বেশ ভালো চলছে ভাইজান, দেশেও ঈদে আমার ছবির খুব ভালো সাড়া: শাকিব খান

Shakib Khan Eid Movie
Shakib Khan Eid Movie

এই ঈদে চিত্রনায়ক শাকিব খানের তিনটি ছবি মুক্তি পেয়েছে বাংলাদেশে, আরেকটি ছবি ভারতের কলকাতায়। বাংলাদেশে মুক্তি পেয়েছে ‘সুপার হিরো’, ‘চিটাগাংইয়া পোয়া নোয়াখাইল্যা মাইয়া’ ও ‘পাঙ্কু জামাই’ আর কলকাতায় ‘ভাইজান এলো রে’। এসব বিষয় নিয়ে শাকিব খানের সঙ্গে কথা বলেন সাংবাদিকরা।

শাকিব খানের কাছে প্রশ্ন ছিল, এই ঈদে একসঙ্গে আপনার চারটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। প্রেক্ষাগৃহে গিয়েছিলেন? উত্তরে শাকিব খান বলেন, প্রতি ঈদেই নামাজ পড়ে গোপনে গোপনে ঢাকার মধ্যে আমার ছবির প্রেক্ষাগৃহগুলোতে ঘুরি। এবারও বেশ কয়েকটি হলে গিয়েছি। প্রেক্ষাগৃহগুলো দর্শকদের দারুণ ভিড় দেখেছি। খুবই ভালো লাগছিল।

বাংলাদেশের তিনটি ছবিই কি দর্শক সমানভাবে দেখছেন? উত্তরে শাকিব খান বলেন, আমি তো প্রথম দিন নিজেই ঘুরেছি। তা ছাড়া বিভিন্ন মাধ্যম থেকে সংবাদ নিচ্ছি, সবখানেই সাড়া ভালো। তবে শুনতে পাচ্ছি, চিটাগাংইয়া পোয়া নোয়াখাইল্যা মাইয়া ও সুপার হিরো ছবি দুটি দেখতে প্রেক্ষাগৃহে দর্শকের উপস্থিতি বেশি। পাঙ্কু জামাই আগের ছবি। ঈদে মুক্তি না দিলেই ভালো হতো।

Shakib Khan Eid Movie Box Office
Shakib Khan Eid Movie Box Office

কলকাতায় ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির দর্শক প্রতিক্রিয়া কেমন? উত্তরে শাকিব বলেন, ভাইজান এলো রের সঙ্গে জিতের সুলতান, সালমান খানের রেস ৩ মুক্তি পেয়েছে। তারপরেও ভাইজান এলো রে বেশ ভালো যাচ্ছে। ছবির পোস্টারে পুরো কলকাতা শহর ছেয়ে গেছে। সেখানে বড় বড় করে আমার ছবি ছাপা। পোস্টার দেখে মনে হচ্ছিল আমি বাংলাদেশেই আছি।

কথা থাকলেও আমদানির মাধ্যমে ‘ভাইজান এলো রে’ বাংলাদেশে মুক্তি পেল না। এ ব্যাপারে কিছু বলবেন? উত্তরে শাকিব বলেন, না এ ব্যাপারে কিছু বলার নেই। এটি আদালতের সিদ্ধান্ত। এর আগে আমদানি বা যৌথ প্রযোজনায় আমার ছবি অন্যায়ভাবে আটকানোর বিরুদ্ধে কথা বলেছি। এবার কিছুই বলিনি, বলতে চাইওনি।

বাংলাদেশে মুক্তি পাওয়া ঈদের তিন ছবির কোনটিকে কত নম্বর দেবেন? উত্তরে শাকিব বলেন, সুপার হিরো, চিটাগাংইয়া পোয়া নোয়াখাইল্যা মাইয়া ছবি দুটির সঙ্গে পাঙ্কু জামাই তুলনা করলে হবে না। এটি আগের শুটিং করা ছবি। কারিগরিভাবে বাকি দুটি ছবির চেয়ে পিছিয়ে আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here