শাকিব খানের উপর দেশী প্রযোজকদের একি আক্ষেপ! (ভিডিও)

shakib khan
super hero

আসছে রোজার ঈদে শাকিব খান অভিনীত আশিকুর রহমানের ‘সুপার হিরো’, উত্তম আকাশের ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্লা মাইয়া’, আব্দুল মান্নানের ‘পাংকু জামাই’ এবং কলকাতার জয়দেব মুখার্জির ‘ভাইজান এলো রে’ মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

ছবিগুলোর প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান হার্টবিট প্রডাকশন, শাপলা মিডিয়া, ভাওয়াল পিকচার্স এবং কলকাতার এসকে মুভিজ প্রেক্ষাগৃহ মালিকদের সঙ্গে যোগাযোগও শুরু করেছেন।

এর মধ্যে ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্লা মাইয়া’র প্রযোজক অর্ধশতাধিক প্রেক্ষাগৃহ বুকিং করেছেন বলেও দাবি করেছেন। কিন্তু শাকিব খান প্রতিটি ছবির ব্যাপারে সমান গুরুত্ব দিচ্ছেন না—এমন অভিযোগ তুলেছেন দেশি তিন ছবির নির্মাতা ও প্রযোজক।

তাঁরা মনে করছেন, শুধু ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির প্রচার-প্রচারণায় মন দিচ্ছেন শাকিব। বাকি ছবিগুলোর ব্যাপারে তিনি উদাসীন। সেই প্রমাণ মিলেছে শাকিবের ফ্যান পেজ, অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেল আর মিডিয়ায় দেওয়া বক্তব্যে।

শেষ দুই সপ্তাহে শাকিব খান তাঁর পেজে ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ নিয়ে মাত্র একটি পোস্ট দিয়েছেন। অন্যদিকে ‘ভাইজান এলো রে’ নিয়ে রয়েছে একাধিক পোস্ট। বাকি দুই ছবি ‘সুপার হিরো’ আর ‘পাংকু জামাই’ নিয়ে কিছুই চোখে পড়েনি তাঁর পেজে!

শাকিবের নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে ‘ভাইজান এলো রে’ নিয়ে রয়েছে দুটি ভিডিও ক্লিপস। অথচ বাকি ছবিগুলো নিয়ে কোনো কিছুই নেই! অভিযোগ আছে, এমন পক্ষপাতিত্ব তিনি গত বছর ঈদেও করেছিলেন।

সেবার যৌথ প্রযোজনার ‘নবাব’ ও দেশি প্রযোজনার ‘রাজনীতি’ মুক্তি পেয়েছিল। কিন্তু শাকিব মেতে ছিলেন ‘নবাব’ বন্দনায়, অন্যদিকে ‘রাজনীতি’ নিয়ে মুখই খোলেননি। বিষয়টি নিয়ে তখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো বেশ সরব হয়েছিল।

রাজনীতি ছবির নায়িকা অপু বিশ্বাসও বিষয়টি নিয়ে কথা তুলেছিলেন। এবারও কি তাহলে দেশি ছবির প্রযোজক-পরিচালকরা গত বছরের পুনরাবৃত্তি দেখতে যাচ্ছে?

কলকাতায় থাকায় এ ব্যাপারে শাকিব খানের কোন মন্তব্য পাওয়া যাওয়া যায় নি।

ভিডিওঃ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here