বিশ্বের অবাক করা ৫ জন আজব বিচিত্র নারী নার্স

Top 5 Nurse
Top 5 Nurse

চিকিৎসা ক্ষেত্রে ডাক্তারের পরেই নার্সের অবস্থান। বর্তমান বিশ্বে নার্সিং বিষয়ে পড়াশুনা করাটা ক্রমশ জনপ্রিয় হয়ে  উঠছে এবং নার্সিং পেশার চাহিদাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু এর সম্মান ও স্বীকৃতি অর্জনের জন্য কয়েক দশক অপেক্ষা করতে হয়েছে। নার্সিং পেশাটি যে সত্যিই মূল্যবান তা উনবিংশ শতাব্দীর পূর্বে স্বীকৃত ছিলো না যতক্ষণ না কিছু অসাধারণ ব্যক্তি বিশেষ করে  নারীরা আহত ও অসুস্থ মানুষের সেবা করার জন্য এই পথটি বেছে নেন। তবে এই নার্সিং পেশাতেও আজব কিছু নারী রয়েছে যারা তাদের অপকর্ম অর্থাৎ কেউ অসুস্থ মানুষকে ধর্ষণ এবং খুন করে অন্যদিকে মহান কাজ অর্থাৎ নার্সিং পেশাকে খুব বেশি ভালোবেসে অসুস্থ রোগীদের সেবা করে বিখ্যাত হয়েছে। ওটিভি বাংলা আজ আপনাদের পৃথিবীর এমন আজব বিচিত্র পাঁচ জন নার্স বা  সেবিকাদের কথাই জানাবে।

৫।  ড্যানিয়েলা পোগিয়ালিঃ ড্যানিয়েলা পোগিয়ালি একজন ইতালিয়ান নারস ছিলেন। তিনি একজন এমন নার্স ছিলেন যার দ্বিতীয় নাম ছিলো ‘দ্য এঞ্জেল অফ ডেথ’। মানে মৃত্যুর পরি। যে হসপিটালে এই নার্স কাজ করতেন সেখানে তার দায়িত্বে থাকা ৩৮ জন রোগী একের পর এক মৃত্যুবরণ করেন। যখন পুলিশ এই ঘটনাটিকে তদন্ত করে তখন দেখা যায়, সব রোগীদের মৃত্যুর কারণ ছিলো পটাশিয়াম ক্লোরাইডের ওভারডোজ। তারপর জানা যায় এই মহিলা নার্সটি রোগীদের মজায় মজায় মেরে ফেলতেন। মানে এইসব করতে তার ভালো লাগতো। ড্যানিয়েলা এইসব রোগীর মৃত্যুর পর তাদের ডেথ বডির সাথে সেলফিও তুলতো। আপাতত সে জেলখানায় রয়েছে এবং তার উপর ৩৮ জনের হত্যা মামলা চলছে।

daniela poggiali
daniela poggiali

৪। কাই সাইরেঃ কাই সাইরেকে আমরা পৃথিবীর সবচেয়ে সেক্সি নার্স বলতে পারি। কারণ কাই সাইরে নিজের হট লুকের জন্য ইন্টারনেটে ব্যাপক ভাইরাল। ইন্সটাগ্রামে কাই সাইরের ৩ লাখ ২০ হাজারের বেশি ফলোয়ার আছে যারা কিনা তার সেক্সি ছবির প্রশংসা করতে একটুও দ্বিধা করে না। নিউইয়র্কে থাকা কাই সাইরে একটি প্রাইভেট হসপিটালে নার্সের চাকরির পাশাপাশি পড়াশুনাও করেন। তিনি যদি চান মডেলিংও করতে পারেন কিন্তু সে বলেন অসুস্থ রোগীদের সেবা করেই বেশি আনন্দবোধ করেন। তার এমন চিন্তাভাবনা দেখে বোঝাই যায় সে শুধু শারীরিক ভাবে সুন্দর নয় তার মানসিকতাও তার বাহ্যিক রুপের মত সুন্দর।

kai cyre
kai cyre

৩। হাদাশা পেরিঃ হাদাশা পেরির জীবনের কাহিনী অন্যদের থেকে অনেকটাই আলাদা যেটা বিশ্বাস করা খুবই কঠিন । হাদাশা পেরি ১৯৯১ সালে আমেরিকার সবচেয়ে ধনী মহিলা হিগেটি ক্লার্কের এখানে নার্সিং এর কাজ করতে শুরু করেন । হিগেটি ক্লার্ককে সেই সময় পৃথিবীর অন্যতম সবথেকে ধনী মহিলা বলে মনে করা হতো যিনি নিজের জীবনের প্রায় কুড়ি বছর গম্ভীর রোগের কারণে হসপিটালে কাটিয়েছেন । এই কুড়ি বছরে হাদাশা পেরি নামক এই নার্স হিগেটি ক্লার্ককে নিজের হৃদয দিয়ে সেবা করেন ।  তারা দিনের বেশিরভাগ সময়টাই একসাথে কাটাতেন । আমেরিকার ধনী মহিলা হিগেটি ক্লার্ক নার্স হাদাশা পেরির সেবায় এতটাই খুশি হয়েছিল যে ২০১১ সালে নিজের মৃত্যুর আগে তিনি নিজের সব সম্প্রতি এই নার্সের নামে লিখে দেন । যার ফলে ফিলিপিন্সের গরীব পরিবারে জন্মানো হাদাশা পেরি ত্রিশ মিলিয়ন ডলারের মালিক হয়ে যান।

hadassah peri
hadassah peri

২। জুলি কিংকঃ রুশ দেশে থাকা জুলি কিংককে একটি অদ্ভুদ অপরাধের জন্য গ্রেফতার করা হয়। এই মহিলা নার্স পুরুষদের ধর্ষণ করত, আপনি ঠিকই শুনলেন। আসলে ৪৫ বছরের এই মহিলা নার্স একটি পাগলা গারদে কাজ করতেন আর তিনি নিজের শারীরিক খিদে মেটানোর জন্য এখানে থাকা পাগলরুগীর সাথে শারিরিক সম্পর্ক তৈরী করত। এই ধর্ষণকারী মহিলা নার্সের এই কাজ তখনই সামনে আসে যখন তিনি এমনটা করার সময় হাতেনাতে ধরা পড়েন । আপাতত এই মহান নার্সের উপর ২৪ জন পুরুষকে ধর্ষণ করার মামলা চলছে ।

julie kenk
julie kenk

১। ফ্লোরেন্স রেগনিঃ ফ্লোরেন্স রেগনি হলেন পৃথিবীর সবথেকে বয়স্ক মহিলা নার্স। যার বয়স ৯০ বছর কিছুদিন আগেই ৯০ বছর বয়স পূর্ণ হলে তিনি নিজের জন্মদিন নিজের হসপিটাল স্টাপদের সাথে পালন করেন। ফ্লোরেন্স প্রায় ৭০ বছর আগে কুড়ি বছর বয়সে এই হসপিটালেই নিজের নার্সিং ক্যারিয়ার শুরু করেন। এমনিতে তো ফ্লোরেন্স একবার অবসরে গিয়েছিলেন কিন্তু কয়েকদিন পর আবার নার্সিং এর কাজে চলে আসেন। তিনি বলেন যে, তার মন হসপিটালে রোগীর সেবা করে ভালো থাকে।

florence rigney
florence rigney

 


LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here